Bangladesh Premier League T20
The fourth edition of the Bangladesh Premier League is going to take place in this coming November; BCB Media Committee chairman Jalal Yunus informed about the matter.
Latest topics
Buy Now
Sponsored
Facebook
Sponsored

বরিশাল হারলেও জিতলেন গেইল

View previous topic View next topic Go down

বরিশাল হারলেও জিতলেন গেইল

Post  nazmul07npk on Wed Feb 15, 2012 4:51 am

একজন সাংবাদিক বলছিলেন ক্রিস গেইল চীন দেশে গেলে তার কোন করে রেখে দিতে পারে। তা না করলেও ক্রিকেট উন্নয়নে গেইলের ক্রিকেট প্রতিভা নিয়ে গবেষণায় নেমে পড়বে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে গেইল যে হারে অতিমানবীয় ইনিংস খেলেছেন তাতে করে তাকে নিয়ে সত্যিই না একদিন গবেষণা শুরু হয়ে যায়। তিনি যেখানেই খেলেন বড় বড় ছয় এবং চারের ফোয়ারায় মন ভরিয়ে দেন দর্শকদের। গেইল না এলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) পূর্ণতা পেতো না। তিনি চলে গেলেও ব্যাটিংয়ের প্রণস্পন্দন কমে যাবে।

কি ইনিংসটাই না খেললেন গেইল। ৬১ বলে ১১৬ রান। মোট ১৭বার বল সীমানা ছাড়া করেছেন। যারমধ্যে ১১টি ছয় এবং ছয়টি চারের মার। চার ম্যাচের দুটিতেই শতক হাঁকিয়েছেন ক্যারিবিয়ান দানব। একেবারে উদ্বোধনী ম্যাচে সিলেট রয়্যালসের বিপরীতে অপরাজিত ১০১ রান করে দলকে জয় উপহার দিয়েছিলেন।

মঙ্গলবার ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরস ২০৮ রান তুলে বরিশাল বার্নার্সের সামনে যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলো তা টপকে যেতে হলে গেইলকে খেলতে হতো ১৫০ বা তারচেয়ে বড় ইনিংস। সেদিকেই যাচ্ছিলেন। ১১৬ রান তোলার পর রানা নাভেদুল হাসানের একটি ডেলিভারি সব লন্ডভন্ড করে দেয়। বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন গেইল, বরিশালের বিজয়ের স্বপ্নেরও মৃত্যু ঘটে।

শেষপর্যন্ত ২১ রানে হেরেছে বরিশাল বার্নার্স। সেই যে প্রথম দুই ম্যাচে জয় পেয়েছে বরিশার পরের দুটিতে পরাজয়। ঢাকার ক্ষেত্রে উল্টো। খুলনা রয়েল বেঙ্গলসের কাছে প্রথম ম্যাচ হেরে পরের তিনটিতে টানা জয়। পয়েন্ট তালিকারও শীর্ষে তারা।

গেইল বন্দনার পাশাপাশি ঢাকার ইনিংস বন্দনা করাও অতীব জরুরী। ২০ ওভারে ২০৮ রানের ইনিংস খেলা সহজ নয়। প্রত্যেকেই ধুন্দুমার ব্যাটিং করে ওই ইনিংস গড়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার ঢাকা। ইমরান নাজির ৫৮, আজহার মাহমুদ অপরাজিত ৭৭ এবং কিয়েরন পোলার্ড ৩৬ রান করেন বলের চেয়ে দ্রুত গতিতে।

বারিশালের গেইল ১১৬ এবং মোহাম্মদ মিথুন ৩৮ রান করেন। বাকিদের ইনিংস ছোট ছোট। উল্লেখ কারার মতো নয়। ঢাকার জয়ের পেছনে মাশরাফির নিয়ন্ত্রিত বোলিং দারুণ কাজে দিয়েছে। চার ওভারে ২০ রান দিয়ে দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন অধিনায়ক। আজহার মাহমুদ চার ওভারে ৪২ রান দিয়ে দুই ইউকেট নিয়েছেন।

ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিংয়ে দুই উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কারও জিতেছেন আজহার মাহমুদ।
avatar
nazmul07npk

Posts : 191
Points : 573
Reputation : 2
Join date : 2012-01-19
Age : 25
Location : Dhaka Cantonment,Dhaka

View user profile http://www.facebook.com/mdnazmulasif

Back to top Go down

View previous topic View next topic Back to top


 
Permissions in this forum:
You cannot reply to topics in this forum